1. admin@ajkerbangla24.com : admin :
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মরহুম শামসুদ্দিন সরকারের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত ষাট উর্ধদের দেওয়া হবে বুস্টার ডোজ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী নরসিংদীতে অটোরিকশায় উপকূল এক্সপ্রেসের ধাক্কা, নিহত ১ ‘মিশন এক্সট্রিম’ দেখার আমন্ত্রণ জানালেন শাকিব হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ভুল পোস্ট ডিলিট করবেন যে কারণে রাজধানীতে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে গ্রেফতার ৭৩ শিল্পখাতে উন্নতি করতে হবে, নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টির পদক্ষেপ নিয়েছি অবশেষে ঢাকা টেস্টর দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু অর্থপাচারে জড়িত ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের তালিকা হাইকোর্টে দাখিল খালেদা জিয়ার চিকিৎসা ইস্যুতে প্রেসক্লাবে শ্রমিক দলের সমাবেশ

গোপালগঞ্জে উরফি নিচুপাড়া সড়কের বেহালদশা

শেখ মোস্তফা জামান, গোপালগঞ্জ
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ৩৬ বার পঠিত

গোপালগঞ্জের উরফি নিচুপাড়া মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে আছে। সড়কজুড়ে বড় বড় গর্ত। একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এছাড়া বর্ষা মৌসুমে পানির নিচে তলিয়ে থাকে সড়টির বাকি অংশ। ফলে এ সড়ক দিয়ে চলাচল করতে পারে না কোনো যানবাহন, বিচ্ছিন্ন হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। পায়ে হেটে বা নৌকায় পারাপার করে অসুস্থ রোগীদের জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়। এতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন আটটি গ্রামের প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ। দ্রুত সড়টি সংস্কারের দাবি তাদের। এদিকে এলজিইডি কতৃপক্ষ বলছে, সড়কটি তালিকাভুক্ত করা হয়েছে, আগামী অর্থ বছরে কাজ শুরু হবে।
গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার উরফি নিচু পাড়া মুক্তিযোদ্ধা সোলাইমান সড়কটির বেহালদশা। তুতবাটি থেকে মানিকহার বাজার পর্যন্ত তিন কিলোমিটার এ সড়কটি চলাচলাচলের একমাত্র পথ। সড়কটি ইটের সলিং আর বর্ষাকাল আসলেই দেড় কিলোমিটার পানির নিচে তলিয়ে যায়। বন্ধ থাকে সব ধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা। ফলে দুর্ভোগে পড়েন সড়কটি দিয়ে যাতায়াতকারী উরফি, মধুপুর, গোপালপুর, মালুপাড়া, চরমানিকদাহ, পাইককান্দি সহ আটটি গ্রামের প্রাই পাঁচ হাজার মানুষ। এই সকল গ্রামের মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়লে জরুরি সেবা ও অ্যাম্বুলেন্স যেতে পারে না। মানুষের কাঁধে করে নিতে হয় রোগীদের। কেউ কেউ আবার নৌকায় পার হয়ে যাচ্ছেন জেলা শহরে।
এদিকে এই সড়কটি ব্যবহার করে স্কুল ও মাদ্রাসায় যায় চারশত শিক্ষার্থী। সড়কটি ভাঙা-চোরা থাকায় যাওয়া-আসার সময় পড়ে গিয়ে বই-খাতা, জামা-কাপর ভিজে যায় শিক্ষার্থীদের। প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে অন্তত ছয় মাস এ সড়ক তলিয়ে থাকে। এতে রাস্তা ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। এ রাস্তা দিয়েই প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধদের পোহাতে হয় চরম দুর্ভোগ।এই রাস্তার কারনে এ অঞ্চলের মানুষ স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও অর্থনৈতিক দিক থেকে পিছিয়ে যাচ্ছে।
স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এমদাদ খান জানান, বার বার এলজিইডির কাছে ধন্যা ধরেও কোনো লাভ হয়নি, প্রতিবছরই বলে এই সড়কে দ্রুত কাজ শুরু হবে।
এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী এস.এম. জাহিদুল ইসলাম বলেন, সড়কটি তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। আগামী অর্থ বছরে কাজ শুরু হবে। সড়কটি সংস্কার হলে জনদুর্ভোগ কমে যাবে।
হাজার হাজার মানুষের দীর্ঘদিনের এই দুর্ভোগ লাঘবে সড়কটি দ্রুত সংস্কারের দাবি এলাকাবাসীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ আজকের বাংলা ২৪
Themes customized By Theme Park BD