1. admin@ajkerbangla24.com : admin :
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৫:১৫ অপরাহ্ন

রাত পোহালেই নাসিক নির্বাচন, কেন্দ্রে কেন্দ্রে যাচ্ছে সরঞ্জাম

আজকের বাংলা
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৫ জানুয়ারি, ২০২২
  • ৪১ বার পঠিত

আলোচিত নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের সময় একদম কাছাকাছি। রবিবার রাত পোহালেই ভোট। শনিবার সকাল থেকেই কেন্দ্রেগুলোতে পাঠানো হয়েছে নিরাপত্তায় নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। পাশাপাশি বেলা ১২টার পর ভোটকেন্দ্রে পাঠানো শুরু হবে ভোটের সরঞ্জামও।

শনিবার বেলা ১১টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই তথ্য জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম এবং রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার।

ভোটের দিন কেন্দ্রসহ গোটা সিটি এলাকা নিরাপত্তার চাদরে ঘেরা থাকবে জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে পুলিশ সদস্যরা তাদের যথাযত দায়িত্ব পালন করবেন। তাদের সঙ্গে থাকবেন আনসার সদস্যরা। পাশাপাশি পুলিশের দুইটি বিশেষায়িত ইউনিট আর্মড পুলিশ ও র‌্যাব কাজ করবে। তাছাড়া প্যারা মিলেটারি ফোর্স ও বিজিবিও তাদের সঙ্গে রয়েছেন।

জায়েদুল আলম বলেন, ‘প্রতিটি কেন্দ্রে পাঁচ-ছয়জন পুলিশ সদস্যের নেতৃত্ব ১৫ থেকে ১৭ জন আনসার সদস্য থাকবে। সব মিলিয়ে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে ২২ থেকে ২৫ জন করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে তিনটি করে আর্মড পুলিশের মোবাইল টিম থাকবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে স্ট্রাইকিং রিজার্ভ ফোর্স এবং র‌্যাবের মোবাইল টিম থাকবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে এক প্লাটুন বিজিবি রাখার চেষ্টা করবো। আমরা ভোট কেন্দ্রসহ পাড়া মহল্লাগুলো নিরাপত্তার চাদরে নিয়ে আসবো।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘আমাদের চাহিদার প্রেক্ষিতে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরও ২৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিয়েছেন। সেই সঙ্গে ১৪ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভোটের দিন সকাল থেকে কাজ করবেন। যাতে করে নির্বাচনে কেউ কোনো অরাজকতা করতে না পারে।

নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের কঠোর পাহারায় ভোট কেন্দ্রগুলোতে ইভিএমসহ অন্যান্য সরঞ্জাম পাঠানো হচ্ছে। একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে আমরা বদ্ধপরিকর।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৭ জন। এরমধ্যে ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৩৯ জন পুরুষ ও ২ লাখ ৫৭ হাজার ৫১৭ জন নারী ভোটার রয়েছে।

অন্যদিকে, এবারের নির্বাচনে সাতজন মেয়র পদপ্রার্থী আছেন। এ ছাড়া কাউন্সিল পদে ১৪৮ প্রার্থী এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৩২ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সদর, বন্দর ও সিদ্ধিরগঞ্জ মিলিয়ে মোট ভোটকেন্দ্র রয়েছে ১৯২টি। এসব কেন্দ্রের নিরাপত্তাসহ ভোটের দিন পুলিশের ২৭টি স্ট্রাইকিং ফোর্স ও ৬৪ মোবাইল টিম মাঠে থাকবে। তিনটি এলাকা মিলিয়ে ১৪ প্লাটুন বিজিবিসহ র‌্যাবের তিনটি স্ট্র্যাইকিং ফোর্স, ছয়টি চেকপোস্ট, সাতটি টহল টিম দায়িত্ব পালন করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ আজকের বাংলা ২৪
Themes customized By Theme Park BD