1. admin@ajkerbangla24.com : admin :
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন

নতুন আইনেই গঠন হবে পরবর্তী নির্বাচন কমিশন

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২২
  • ৫৩ বার পঠিত

নতুন আইনেই গঠন করা হবে পরবর্তী নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এরই মধ্যে এ সংক্রান্ত আইনের খসড়া অনুমোদনও দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সংসদের এই অধিবেশনেই আইনটি পাস হবে। সরকার নতুন আইনের মাধ্যমে পরবর্তী কমিশন গঠন করতে চাইছে।

সংবিধান অনুযায়ী, ইসি গঠনের দায়িত্ব রাষ্ট্রপতির। সংবিধানে এ বিষয়ে আইন করার কথাও বলা হয়েছে। কিন্তু কোনো সরকারই আইন করেনি। এতদিন রাষ্ট্রপতি সরাসরি ইসি গঠন করে দিতেন। সার্চ কমিটির মাধ্যমে বিগত দুটি কমিশন গঠন করেছেন রাষ্ট্রপতি। এবারও একই প্রক্রিয়ায় এগোচ্ছেন তিনি।

সংলাপে অংশ নেওয়া বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও নানা সময়ে বিশিষ্টজনেরা ইসি গঠনে আইন প্রণয়নের বিষয়ে দাবি জানিয়ে আসছেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে সরকার ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন, ২০২২’ করার উদ্যোগ নিয়েছে। সরকার এই আইনের মাধ্যমেই নতুন কমিশন গঠন করতে চায়।

নতুন আইনেই নির্বাচন কমিশন গঠন হচ্ছে কি না— এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ বলেন, ‘নতুন আইনেই নির্বাচন কমিশন গঠনে আন্তরিক সরকার। আশা করা যায়, স্বল্প সময়ের মধ্যেই আইন পাস করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ দেওয়া যাবে।’

একই প্রশ্নের জবাবে সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যদি এর মধ্যে আইনটি চূড়ান্ত হয়ে যায় তাহলে নতুন আইনেই কমিশন গঠন করা হবে।’

এত অল্প সময়ে আইন প্রণয়ন করা সম্ভব কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কোনো কিছুই অসম্ভব নয়, অপেক্ষা করুন।’

নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন আইন সংসদের চলমান অধিবেশনে পাস করানোর সর্বাত্মক প্রয়াস থাকবে বলেও জানান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এই সাধারণ সম্পাদক।

এদিকে, ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন, ২০২২’র খসড়া মন্ত্রিসভায় পাসের পর আগামী নির্বাচন কমিশন এই আইনের অধীনে হবে কি না— এমন প্রশ্ন ছিল মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের কাছে। জবাবে তিনি সোমবার (১৭ জানুয়ারি) বলেন, ‘যদি এর মধ্যে আইন পাস হয়ে যায়, তাহলে হবে। আজ অনুমোদন দেওয়া হলো, হয়তো কাল-পরশু দুদিন লাগবে আইন মন্ত্রণালয়ের। তারপর যদি উনারা সংসদে পাঠান, সংসদেও তো কয়েকদিন লাগবে। স্ট্যান্ডিং কমিটিতে যাবে, উনারা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবেন। যদি হয়, তো হয়ে যাবে, অসুবিধা তো নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি, আইনটি চূড়ান্ত করতে খুব বেশি সময় লাগার কথা নয়। এটি খুব বেশি বড় আইন নয়। এ জাতীয় আইন যেহেতু আমরা হ্যান্ডেল করে আসছি, দুর্নীতি দমন কমিশন আইন আছে। মোটামুটি সেই অনুযায়ী এটা করা হয়েছে।’

তবে সরকার ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপতির আহ্বানে সংলাপ ও সেই আলোকে সার্চ কমিটি গঠন এবং নির্বাচন কমিশন গঠন প্রক্রিয়া চলমান থাকবে। এর মধ্যে আইনটি চূড়ান্ত হলে আইনের আলোকেই নিয়োগ হবে সিইসি ও অন্যান্য ইসি। তবে আইনে নির্বাচন কমিশন গঠন ও রাষ্ট্রপতির চলমান প্রক্রিয়ায় তেমন তফাৎ নেই। দুটোই সামঞ্জস্যপূর্ণ। এমনকি গেলো দুই বারের ইসি গঠনের বৈধতাও এই আইনে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ আজকের বাংলা ২৪
Themes customized By Theme Park BD